English | Bangla
কার্যক্রম
প্রকৃত মূল্য ও সুনির্দিষ্ট কর বৃদ্ধি তামাকের ব্যবহার কমাবে, সরকারের রাজস্ব বাড়াবে, দীর্ঘমেয়াদে স্বাস্থ্যখাতে ব্যয় কমবে এবং আগামী দিনে সুস্থ্য সবল জাতি পাওয়া যাবে। বাংলাদেশের বিদ্যমান কর ব্যবস্থায় তামাক কোম্পানিগুলো লাভবান হয়। কর বৃদ্ধির ক্ষেত্রে লক্ষ্য রাখা প্রয়োজন, যাতে তামাক কোম্পানির লাভ বেড়ে না যায়। তামাক ব্যবহার কমাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুসারে জাতীয় তামাক করনীতি প্রণয়ন করা জরুরি। আজ ১১ মার্চ ২০১৯ ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ (ডাব্লিউবিবি) ট্রাস্ট এর উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে “তামাকের স্বাস্থ্য ক্ষতি রোধে তামাক ...
২৫ সেপ্টেম্বর বিকেলে ব্র্যাক ইনষ্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স এন্ড ডেভেলপমেন্ট এবং ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট’র যৌথ উদ্যোগে “বাংলাদেশে তামাক কর : প্রতিবন্ধকতা ও করনীয়” শীর্ষক বিশেষজ্ঞ সভা অনুষ্ঠিত হয়।  ...
০৫ জুলাই, ২০১৮ বিকেলে জাতীয় সংসদের মাননীয় স্পীকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরীর সাথে তার কার্য্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় সামগ্রীক তামাক নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে তার সাথে আলোচনা করা হয়। ...
তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে নানা ভবিষ্যত পদক্ষেপ গ্রহণের কথা বললেও বাজেট প্রস্তাবনায় তার প্রতিফলন অনুপস্থিত। বরং জনস্বাস্থ্যকে উপেক্ষা করে তামাক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষা করা হয়েছে। ২৭ জুন, ২০১৮ জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জ-৩, “২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটে তামাক কর: উপেক্ষিত জনস্বাস্থ্য” শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে আয়োজকরা এ দাবী করেন।  ...
০৪ জুন, ২০১৮ সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ তামাক বিরোধী জোট ও ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট’র আয়োজনে “তামাকের উপর কর বৃদ্ধিতে তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ বন্ধ করা হোক” শীর্ষক অবস্থান কর্মসূচি অনিুষ্ঠিত হয়। ...